1. support@renexlimited.com : Renex Ltd : Renex Ltd
  2. nirobislamrasel@gmail.com : Shuvo Khan : Shuvo Khan
মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ০৩:৫২ পূর্বাহ্ন

কেমন গেলো লকডাউনের প্রথম দিন?

নিজস্ব সংবাদদাতা
  • বুধবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২১

মহামারি করোনাভাইরাস রোধে ‘কঠোর লকডাউন’র প্রথম দিন সকাল থেকেই মেনে চলা হয়েছে স্বাস্থ্যবিধি ও সরকারি সকল নির্দেশনা। রাস্তায় পুলিশের ট্রাফিক বক্স ছাড়াও বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে ছিল পুলিশের চেকপোস্ট-টহল। এছাড়াও সচেতন নাগরিকদের মধ্যে করোনা সচেতনতা থাকায় বাসা-বাড়ি থেকে খুম কম বের হয়েছেন তারা। তবে নিম্ন আয়ের মানুষদের ভোগান্তির শেষ ছিল না।

বুধবার (১৪ এপ্রিল) ছিল সর্বাত্মক লকডাউনের প্রথম দিন। রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে লকডাউনের এমন চিত্রই দেখা গেছে এদিন। করোনা রোধে এক সপ্তাহের জন্য দেশব্যাপী কঠোর লকডাউন ঘোষণা করায় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরাও কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।

এদিন রাজধানীর সচরাচর জনসমাগম হওয়া এলাকাগুলো ছিল জনশূন্য। দুপুর গড়িয়ে বিকেল পৌনে ৪টার দিকে রাজধানীর রওয়ান বাজার, ফার্মগেট, বাংলামোটর, শাহবাগ ও ধানমন্ডি-৩২ এলাকা ঘুরে খুব একটা জনসমাগম চোখে পড়েনি। তবে পুলিশের চেকপোস্ট-টহল ছিল বেশ কঠোর। যদিও দু’একজন অহেতুক কারণ দেখিয়ে বাইরে বের হয়েছেন তাদের ক্ষেত্রে পুলিশদের কঠোর হতে দেখা গিয়েছে। ‘মুভমেন্ট পাস’ ও জরুরি প্রয়োজনীয় কাজ ছাড়া কাউকে মোটর সাইকেল বা অন্য কোনো যানে চলতে দেখলে পুলিশের কাছে প্রশ্নের মুখে পড়তে হয়েছে তাদের।

রাস্তায় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য ও গণমাধ্যমকর্মীদের ছাড়া অন্য মানুষদের খুব একটা চোখে পড়েনি।

রাজধানীর শাহবাগ এলাকা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় ও আশপাশ ঘুরে দেখা যায় ওষুধের দোকানগুলো খোলা থাকলেও সেখানে ওষুধ কেনার কোনো গ্রাহক নেই। এছাড়াও পান্থপথ ও ধানমন্ডি-৩২ এলাকার আশপাশের এলাকায় দেখা জনসমাগম রোধে নিত্যপ্রয়োজনীয় দোকান কখন বন্ধ থাকবে এবং কতক্ষণ খোলা থাকবে এ নিয়ে সজাগ অবস্থানে পুলিশ।

পুরান ঢাকায় ঘুরেও ফাঁকা চিত্র দেখা গেছে। দু’বছর আগেও রমজানে বেশ জাকজমক আয়োজন হতো পুরান ঢাকায়। কিন্তু এবার অন্যান্য বছরের তুলনায় অনেক ফাঁকা। কঠোর লকডাউনের জন্য হাতেগোনা দুই একটা স্থায়ী দোকান ছাড়া প্যান্ডেলে শামিয়ানা টানানো অস্থায়ী কোনো ইফতারের দোকান চোখে পড়েনি।

এদিকে বুধবার (১৪ এপ্রিল) মাহে রমজানের প্রথম দিন ও বাংলা নববর্ষ হওয়ার পর শুধু কঠোর লকডাউনের জন্য রাজধানীর রমনা, মৎস ভবন, পল্টন এলাকা ছিল ফাঁকা চিত্র। প্রতিটি স্থানেই ছিল পুলিশের অবস্থান। রাস্তায় মানুষজন যদিও কম বের হয়েছে তবে তাদের সতর্ক করে ঘরে থাকার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন ডিউটিরত পুলিশরা।

আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর একাধিক সদস্যরা কঠোর লকডাউনের বিষয়ে জানিয়েছেন, সবাইকে লকডাউন পালনে বেশ কঠোর অবস্থানে আছি আমরা। মুভমেন্ট পাস ছাড়া কাউকে বাইরে বের হতে দেয়া হচ্ছে না। যদিও দু’একজন আসছেন তাদের সতর্ক করছি। এছাড়া পরিবারের সদস্যদের নিয়ে করোনা রোধে সচেতন থাকার জন্যও অনুরোধ করছি আমরা।

আরও পড়ুন...
স্বত্ব © ২০২৩ প্রিয়দেশ
Theme Customized BY LatestNews
%d bloggers like this: